তিক্ততার পরে হঠাৎই মধুময় ক্ষন যেনো মূল্যহীন- নিপা

0

তিক্ততার পরে হঠাৎই মধুময় ক্ষন যেনো মূল্যহীন, কারো অতিমাত্রায় যন্ত্রনা দেওয়ার পর ক্ষমা চাওয়া যেনো ভেজা কাঠে আগুন ধরাবার মত।
রোজকার ছোটখাট কষ্টগুলো যারা সয় এবং প্রায়ই ইগ্নোর করে হাজারো নিন্দা অবহেলা তাদের কাছে অতিমাত্রায় কষ্টগুলো এক রকমের হাতের ময়লার মত ঝেরে ফেললাম আবার উঠে কাজ করলাম এমন যেনো….

মায়া কাটিয়ে কিছু করার প্রবল বাসনা নিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়াটাই যেনো তাদের মুল লক্ষ্য।হোক না সে পথ কন্টকাকীর্ন হোকনা মাঝে মাঝে ধাক্কা খেতে খেতে এগিয়ে যাওয়া,যখন আমি আমার গন্তব্যে পৌছে যাবো তখন এই কষ্টগুলো অতি কষ্টে মিষ্ট লাভের মত হবে।

আপনজনের কাছ থেকে যেদিন অনেক কিছুই পাওয়ার আশা ছেড়ে দিবেন সেদিন থেকে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হতে হবে যে আমি এখন বৈঠা ভাজ্ঞা নৌকায় উঠেছি এবং তীরে ভিড়তে হলে আমাকে এই ভাজ্ঞা বৈঠাকেই কাজে লাগাতে হবে,

আবেগগুলোকে যেদিন বাদ দিয়ে কঠিন হয়ে উঠবেন সেদিন হতে আপনাকে ভাবতে হবে আপনি একটি একটি মাটির পাত্র,জল যত কম গ্রহন করবেন ততই টিকে থাকবেন,নইলে ঠাস……….

আপনজনদের কাছ থেকে যেদিন আঘাত পেয়ে সরে আসবেন নিজে প্রতিষ্ঠিত হতে সেদিন থেকে ভেবে নিবেন আপনি একটি গাছের ঝরে পরা ডাল,আপনাকে এখন মাটি আকড়ে ধরে বাড়তে হবে,নিজের অস্তিত্ব গড়ে তুলতে হবে, দুনিয়াটাতো খুব স্বার্থপর এখানে মায়ার চাইতে নিজ জায়গার মজবুত থাকা বেশি জরুরী…

নিজে যদি নিজের দায়িত্ব নিতে না পারেন তবে অন্যকে ভরসা কিভাবে দিবেন..??!! দুই হাত দুই পা আর একটি বুদ্ধিমান মস্তিষ্ক আছে তো আপনার? ব্যস এইগুলোকে কাজে লাগান দেখবেন অন্যদের কাছে কখনই ছোট হবেন না.

পোষ্টটি লিখেছেন

নিপা আক্তার
নিপা আক্তার
প্রতিভা জাহান নিপা। শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ওয়েবসাইট এডু হেল্পস বিডির একজন নিয়মিত লেখিকা।হাজী আবদুল আউয়াল কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশের পরে বর্তমানে ঢাকার স্বনামধন্য ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজ এর বদরুন্নেসা মহিলা কলেজে অনার্স কোর্সে অধ্যয়নরত আছেন।