সরকারি পলিটেকনিক ভর্তি তথ্য: আবেদনের পদ্ধতি, যোগ্যতা ও করণীয়

0

পলিটেকনিক ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ। বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে সরকারি পলিটেকনিক ভর্তি বা সরকারি পলিটেকনিক ডিপ্লোমা ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়ে থাকে। সরকারি পলিটেকনিক ডিপ্লোমা ভর্তি অনলাইনে আবেদন ৮ই জানুুয়ারি ২০২২ইং থেকে শুরু হয়ে তা চলবে ১৭ জনুয়ারী ২০২২ইং তারিখ পর্যন্ত। ক্লাস শুরু করা হবে ০২ এপ্রিল ২০২২ইং। কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে সকল সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। 

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট http://btebadmission.gov.bd/website/ এর মাধ্যমে আবেদন করা যাবে। বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করার সাথে সাথেই আমরা আমাদের সাইটে সরকারি পলিটেকনিক ভর্তি বিষয়ক সকল তথ্য ও করণীয় বিষয়াবলী আপডেট করে দিয়েছি। সরকারি পলিটেকনিক ডিপ্লোমা ভর্তি সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় সমস্ত তথ্য নিচে দেয়া হলঃ

সরকারি পলিটেকনিক ভর্তি তথ্য দেখুন এখানে

স্বাগতম আপনাকে পলিটেকনিক ভর্তি তথ্য ও করণীয় বিষয়াবলী সম্বন্ধে ধারনা নেয়ার জন্য। আমরা আশা করি আমাদের এই লেখাটি পলিটেকনিক অ্যাডমিশন সার্কুলার বা সরকারি পলিটেকনিক ভর্তি সম্পর্কে সমস্ত তথ্য জানতে আপনাকে অনেক সহায়তা করবে।

এসএসসি ফলাফল দেওয়ার পর কিছু শিক্ষার্থী পলিটেকনিক ডিপ্লোমা শিক্ষার দিকে যেতে আগ্রহী থাকেন। তবে বেশিরভাগ শিক্ষার্থীরই পলিটেকনিক ভর্তি সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা থাকে না। ডিপ্লোমা ভর্তি সম্পর্কে বেশিরভাগ শিক্ষার্থীর পর্যাপ্ত জ্ঞান থাকা জরুরী। সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজসমূহে ০৪ (চার) বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিপ্লোমা-ইন-টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ডিপ্লোমা-ইন-ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি কোর্সে ১ম ও ২য় শিফটে ছাত্র/ছাত্রী ভর্তির জন্য সুযোগ পায়। পলিটেকনিক ভর্তির অনলাইনে আবেদন করতে কি কি ধাপ, কি কি শর্ত, কি কি যোগ্যতা ও কি করনীয় তা নিচে আলোচনা করা হলঃ

পলিটেকনিক ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতা

  • পলিটেকনিক ভর্তির জন্য আপনাকে যেকোন সালে এস.এস.সি./ সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। 
  • ছেলে শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে সাধারণ গণিত বা উচ্চতর গণিতে কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০ সহ ন্যূনতম ৩.৫০ জিপিএ প্রাপ্ত হতে হবে। 
  • মেয়ে শিক্ষার্থীদের ভর্তির ক্ষেত্রে সাধারণ গণিত বা উচ্চতর গণিতে কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০ সহ ন্যূনতম ৩.০০ জিপিএ প্রাপ্ত হতে হবে। 
  • ‘ও’ লেভেলে যে কোন একটি বিষয়ে ‘সি’ গ্রেড এবং গণিতসহ অন্য যেকোন দুটি বিষয়ে কমপক্ষে ‘ডি’ গ্রেডে উত্তীর্ণ হতে হবে। 
ভর্তির নীতিমালা দেখুন এখান থেকে 

পলিটেকনিক ভর্তির টাইমটেবিল 

১ম পর্যায়
আবেদন শুরু হবেঃ৮ই জানুুয়ারি ২০২২ইং থেকে শুরু হয়ে চলবে ১৭ জনুয়ারী ২০২২ইং পর্যন্ত। 
ফলাফল প্রকাশ করবেঃ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২২ইং।
নিশ্চায়নের সময়সীমাঃ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২২ইং থেকে ০১ মার্চ ২০২২ইং পর্যন্ত।

 

২য় পর্যায়
আবেদন শুরু হবেঃ 
মাইগ্রেশনঃ 
ফলাফল প্রকাশিত হবেঃ 
নিশ্চায়নের সময়সীমাঃ  

 

৩য় পর্যায়
আবেদন শুরু হবেঃ 
মাইগ্রেশনঃ 
ফলাফল প্রকাশিত হবেঃ 
নিশ্চায়নের সময়সীমাঃ  

 

পলিটেকনিক ভর্তির অফিশিয়াল নোটিশ 

Screenshot 12

Screenshot 13

ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ডাউনলোড করুন

ভর্তির আবেদনের পদ্ধতি ও সকল নিয়মাবলী

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট btebadmission.gov.bd এর মাধ্যমে আবেদন করা যাবে। অথবা www.bteb.gov.bd অথবা www.techedu.gov.bd অথবা www.tmed.gov.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে নির্ধারিত আবেদন ফরম (Application form) যথাযথভাবে পূরণ করতে হবে। 

ভর্তির আবেদন করুন এখান থেকে

সরকারি পলিটেকনিক ভর্তি
সরকারি পলিটেকনিক ভর্তি তথ্য

বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এসএসসি উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের নম্বরপত্রের সত্যায়িত কপি ও ২ কপি পাসপাের্ট সাইজের সত্যায়িত রঙ্গিন ছবিসহ নির্ধারিত শিক্ষা বাের্ডের www.btebadmission.gov.bd ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করতে হবে। 

যাবতীয় সকল তথ্য দ্বারা আবেদন ফরমটি পূরণ করে প্রিন্ট কপি ও সকল প্রয়োজনীয় কাগজপত্র অফিস চলাকালীন সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ডের পুরাতন ভবনের ৪১২ নং কক্ষে সরাসরি অথবা খামে ভর্তিকোটার আবেদন লেখাসহ নিম্নস্বাক্ষরকারীর বরাবর ডাকযােগের মাধ্যমে পৌছানাে নিশ্চিত করতে হবে। 

আবেদনের নির্ধারিত ফিঃ 

ভর্তিচ্ছু সকল প্রার্থীদের অনলাইনে ১ম ও ২য় শিফটের যে কোন একটি শিফটের জন্য আবেদন ফি বাবদ ১৫০/- (একশত পঞ্চাশ টাকা) জমা দিতে হবে। টেলিটক/রকেট/শিওরক্যাশ/বিকাশ এর মাধ্যমে আবেদনের নির্ধারিত ফি জমা দেওয়া যাবে। 

আবেদনের ফি দেওয়ার নিয়ম 

Screenshot 9

Screenshot 10

Screenshot 11

পলিটেকনিক ভর্তির যাবতীয়  ফি  

অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে ১৫০/- টাকা অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে জমাদান সাপেক্ষে পছন্দক্রম অনুযায়ী এক বা একাধিক প্রতিষ্ঠানে সর্বোচ্চ ১৫ টি টেকনোলজি/ট্রেড/স্পেশালাইজেশন-এ আবেদন করতে পারবেন। অনলাইনে প্রতি শিফটের জন্য মাত্র একবারই আবেদন করার সুযোগ থাকবে। কিন্তু অতিরিক্ত পছন্দের ক্ষেত্রে যে কোন প্রতিষ্ঠান ও যে কোন বিষয় নির্বাচন করতে পারবেন।  

ডিপ্লোমা পর্যায়ের সকল শিক্ষার্থীদের জন্য নিম্নে দেয়া ফি প্রযোজ্য হবেঃ

  • রেজিস্ট্রেশন ফি ২০০ (দুইশত) টাকা। 
  • রোভার স্কাউট ফি ১৫ (পনেরো) টাকা।  
  • রেড ক্রিসেন্ট ফি ২০ (কুড়ি) টাকা। 

সরকারি সকল পলিটেকনিক ও সরকারি সকল টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজসমূহে ভর্তির জন্য ৩৮৫/- টাকা এবং অন্যান্য সকল সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহে ভর্তির জন্য ২৩৫/- টাকা+অনলাইন পেমেন্ট চার্জ ৩.০০ টাকা মোট (২৩৫+৩)=২৩৮/- টাকা প্রদান সাপেক্ষে ভর্তি নিশ্চায়ন করে নিতে হবে। তবে শর্ত থাকে, কোন শিক্ষার্থীর পাঠ বিরতি থাকলে, বিলম্বে ভর্তি হলে এবং শাখা/বিষয় পরিবর্তন করলে তার নিকট হতে উপরিউক্ত ফি থেকে আরও অতিরিক্ত ফি গ্রহণ করা যাবে।  

এইচ এস সি /সমমান শিক্ষার্থীদের জন্য নিম্নে দেয়া ফি প্রযোজ্য হবেঃ

রেজিস্ট্রেশন ফি বাবদ১২০ টাকা 
ক্রীড়া ফি বাবদ৩০ টাকা 
রোভার /রেঞ্জার ফি বাবদ১৫ টাকা
রেড ক্রিসেন্ট ফি বাবদ২০ টাকা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ফি বাবদ০৭ টাকা
বার্ষিক ক্রীড়া মঞ্জুরী ফি বাবদ২০০ টাকা

 

সরকারি পলিটেকনিকের তালিকা, আসন সংখ্যা এবং বিভাগসমূহ

কিছু সাধারণ জিজ্ঞাসা 

সরকারি পলিটেকনিক ভর্তি

সরকারি পলিটেকনিক ভর্তি

পলিটেকনিক ভর্তির মেধা তালিকার ফলাফল

 

 

পোষ্টটি লিখেছেন

মেহেদী হাসান
মেহেদী হাসান
মেহেদী হাসান, শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ওয়েবসাইট "এডু হেপ্লস বিডি"র সহ প্রতিষ্ঠাতা। এই সাইটে নিয়মিত শিক্ষা বিষয়ক বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখি করে থাকেন। বর্তমানে তিনি ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সিএসই বিভাগ থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করে টেক্সন লিমিটেডে প্রজেক্ট লিড হিসাবে কর্মরত আছেন।