২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি

0

২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি। একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির নীতিমালা ২০২১। কলেজ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ও নীতিমালা ২০২১: সরকারি এবং বেসরকারি কলেজসমূহে উচ্চ মাধ্যমিক একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির নীতিমালা প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত নীতিমালা অনুসারে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শুরু হবে ৮ জানুয়ারী থেকে। এবং তা আগামী ১৫ জানুয়ারী পর্যন্ত চলবে। আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হলে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য ১ম পর্যায়ে নির্বাচিতদের তালিকা বা রেজাল্ট প্রকাশ করা হবে ২৯ জানুয়ারী রাত ৮ টায়। একাদশ শ্রেণির ক্লাশ শুরু হবে আগামী ২ মার্চ।  

বিগত কয়েক বছরের মতো এবারও এসএসসির ফলাফলের ভিত্তিতে ভর্তি করা হবে। তবে এবার এসএমএস এর মাধ্যমে আবেদন থাকছে না। ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শুধু অনলাইনের মাধ্যমে করা যাবে। প্রার্থীগন সর্বনিম্ন ০৫টি কলেজ এবং সর্বোচ্চ ১০টি কলেজের জন্য আবেদন করতে পারবে। আসুন জেনে নেওয়া যাক একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি প্রক্রিয়ার বিস্তারিত সকল তথ্যঃ

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি এবং বিস্তারিত সকল তথ্য

একাদশ ভর্তির যোগ্যতাঃ ২০১৯, ২০২০ এবং ২০২১ সালের এসএসসি উত্তীর্ণরাও ছাড়া বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১৯,২০২০ ও ২০২১ সালের শিক্ষার্থীগণ একাদশ ভর্তির যোগ্য বলে বিবেচিত হবে। উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভর্তির ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীগণের বয়স ২২ বছর হবে সর্বোচ্চ। 

আবেদনের পদ্ধতিঃ শুধুমাত্র অনলাইনের মাধ্যমে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করা যাবে।   

আবেদনের সময়ঃ প্রকাশিত নীতিমালা অনুসারে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শুরু হবে ৮ জানুয়ারী থেকে। এবং তা আগামী ১৫ জানুয়ারী পর্যন্ত চলবে।

অনলাইনে আবেদন করার লিঙ্কঃ অনলাইনে আবেদনের জন্য www.xiclassadmission.gov.bd ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে। 

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তিতে অনলাইন আবেদনের ক্ষেত্রে আবেদন ফি ১৫০ টাকা প্রযোজ্য হবে। একজন শিক্ষার্থী তার প্রাপ্ত গ্রেডের উপর ভিত্তি করে পছন্দ অনুযায়ী সর্বনিম্ন ৫টি কলেজ ও সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে আবেদন করতে পারবে। যদি কোন শিক্ষার্থীর মেধা বা কোটা যদি থাকে তবে পছন্দের ক্রম ভিত্তিতে কলেজে উক্ত শিক্ষার্থীর অবস্থান নির্ণয় করা হবে।  

ভর্তির নীতিমালা ডাউনলোড করুন

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি

আবেদনের পেমেন্ট পদ্ধতি: বিকাশ,রকেট,নগদ,সোনালী ই সেবা, সোনালী ওয়েব পেমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে আবেদনের ফি পেমেন্ট করা যাবে। 

ভর্তির শাখা নির্বাচনঃ বিজ্ঞান শাখা থেকে উত্তীর্ণ হয়েছে যারা তারা যেকোনো বিভাগে ভর্তি হতে পারবে। মানবিক শাখা থেকে উত্তীর্ণ যারা তারা মানবিকের পাশাপাশি ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় এবং ব্যবসায় শিক্ষার শিক্ষার্থীরা ব্যবসায় শিক্ষা ও মানবিক উভয় বিভাগেই ভর্তি হতে পারবে। 

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি টাইমটেবিল দেখুন

আবেদনের সময়ঃ প্রকাশিত নীতিমালা অনুসারে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শুরু হবে ৮ জানুয়ারী থেকে। এবং তা আগামী ১৫ জানুয়ারী পর্যন্ত চলবে।

 

  • ১ম মেধা তালিকার ফলাফল দেয়া হবে ২৯ জানুয়ারী এসএমএস এবং স্ব স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নোটিশ বোর্ডে।
  • শিক্ষার্থীর Selection নিশ্চায়ন ৩০ জানুয়ারী থেকে ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২২ পর্যন্ত চলবে। 
  • ২য় পর্যায়ের আবেদন চলবে ০৭ ফেব্রুয়ারী থেকে ০৮ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত।
  • ১ম মাইগ্রেশনের ফল দেয়া হবে ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২২ তারিখে। 
  • ২য় পর্যায়ের শিক্ষার্থীর Selection নিশ্চায়ন ১১ থেকে ১২ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত চলবে।
  • ৩য় পর্যায়ের আবেদন চলবে ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২২ইং পর্যন্ত।
  • ২য় মাইগ্রেশনের ফল ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২২ইং (রাত ৮:০০ টায়) দেয়া হবে। 
  • ৩য় পর্যায়ের আবেদনের ফল ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২২ইং (রাত ৮:০০ টায়) দেয়া হবে। 
  • ৩য় পর্যায়ের শিক্ষার্থীর Selection নিশ্চায়ন ১৬ থেকে ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২ পর্যন্ত চলবে। 
  • ভর্তির জন্য সময়সীমা ১৯ থেকে ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২২ইং পর্যন্ত।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি

বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম ও সঠিক আবেদন পদ্ধতি 

আপনার কাঙ্খিত কলেজের EIIN নম্বর জানুন এখান থেকে 

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি খরচসমূহ দেখুন

এমপিওভুক্ত, নন এমপিওভুক্ত এবং আংশিক এমপিওভুক্ত কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট ভর্তি ফি ও সেশন চার্জ নির্ধারণ করে দিয়েছে ঢাকা শিক্ষাবোর্ড।  

এমপিওভুক্ত কলেজের ক্ষেত্রেঃ ঢাকা মেট্রোপলিটন ৫ হাজার টাকা, মেট্রোপলিটন ঢাকা ব্যতীত ৩ হাজার টাকা, জেলার মধ্যে ২ হাজার টাকা এবং উপজেলা ভিত্তিক ১,৫০০ টাকা নির্ধারিত। 

নন এমপিওভুক্ত ও আংশিক এমপিওভুক্ত কলেজের ক্ষেত্রেঃ ঢাকা মেট্রোপলিটনের মধ্যে বাংলা ভার্সনে ৭,৫০০ টাকা এবং ইংরেজি ভার্সনে ৮,৫০০ টাকা নির্ধারিত। মেট্রোপলিটন ঢাকা ব্যতীত বাংলা ভার্সনে ৫,০০০ টাকা এবং ইংরেজি ভার্সনে ৬,০০০ টাকা নির্ধারিত। জেলার মধ্যে বাংলা ভার্সনে ৩,০০০ টাকা এবং ইংরেজি ভার্সনে ৪,০০০ টাকা নির্ধারিত। উপজেলা ভিত্তিক ইংরেজি ভার্সনে ২,৫০০ টাকা এবং ইংরেজি ভার্সনে ৩,০০০ টাকা নির্ধারিত।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি

উল্লেখ্য যে সরকারি কলেজসমূহ সরকার কতৃক প্রদত্ত নিয়মানুযায়ী ভর্তি ফি ও সেশন চার্জ গ্রহণ করবে। দরিদ্র, মেধাবী ও প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের ভর্তির ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানসমূহ যতটুকু সম্ভব ফি মওকুফের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানানো হয়। 

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি প্রার্থী নির্বাচনের পদ্ধতি

কলেজে ভর্তি হতে কি পরিমাণ পয়েন্ট থাকতে হয় বা হবে তা কলেজ কতৃপক্ষ নির্ধারণ করে থাকে। ভর্তি সংক্রান্ত সকল তথ্য কাঙ্ক্ষিত কলেজের ওয়েবসাইট ও নোটিশ বোর্ডে পাওয়া যাবে। শিক্ষাবোর্ড কতৃক প্রণিত নিয়ম ও সময় অনুসারেই ভর্তির কার্যক্রম শুরু করবে সকল কলেজসমূহ। 

  • এসএসসি বা সমমান পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে ভর্তি করা হবে। সমান জিপিএ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সর্বমোট প্রাপ্ত নাম্বার বিবেচনা করা হবে।
  • বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তির জন্য কোন প্রার্থীদের সর্বমোট নম্বর যদি সমান হয়, সেই ক্ষেত্রে সাধারণ গণিত, উচ্চতর গণিত / জীববিজ্ঞান এ প্রাপ্ত নম্বর কত তা বিবেচনা করা হবে।
  • যদি কোনভাবেই অপশনাল সাবজেক্ট বিবেচনা করেও কোনো সমাধান না আসে সেক্ষেত্রে ইংরেজি, পদার্থ বিজ্ঞান, রসায়নের প্রাপ্ত নম্বর বিবেচনায় মেধা তালিকা তৈরি হবে।
  • ব্যবসায় শিক্ষা ও মানবিক বিভাগের জন্য ইংরেজি, গণিত ও বাংলা বিষয়ে প্রাপ্ত নম্বর ভিত্তিতে ভর্তি বিবেচনা করা হবে। 
  • গ্রুপ পরিবর্তন করে Class XI ভর্তি হতে চাইলে সেক্ষেত্রে প্রাপ্ত নাম্বারের ভিত্তিতে প্রার্থী নির্বাচন করা হবে।
  • কোনভাবে নম্বর বিবেচনায় প্রার্থী নির্বাচন করা না গেলে বাংলা, ইংরেজি ও গণিত বিষয় বিবেচনায় প্রার্থী ভর্তির জন্য নির্বাচন করা হবে। 

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য কোনো ধরনের ভর্তি পরীক্ষা বা বাছাই পরীক্ষা দিতে হবে না। Class XI Admission এর ক্ষেত্রে মেধার ভিত্তিতে ৯৫% আসন নির্বাচিত হবে। মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও সন্তানদের সন্তানগণ পাবেন কোটা অনুসারে বাকি ৫% আসন। এক্ষেত্রে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয় থেকে প্রদত্ত সনদপত্র দাখিল করতে হবে। 

তবে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীগণ, প্রবাসীদের সন্তান বা বি.কে.এস.পি. থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীগণ খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে জাতীয় বা বিভাগীয় পর্যায়ে অবদান রাখার জন্য পুরস্কারপ্রাপ্ত হলে সেক্ষেত্রে ভর্তির জন্য একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির ম্যানুয়ালি আবেদন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে বোর্ডে প্রমাণস্বরূপ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিল করতে হবে। 

 

পোষ্টটি লিখেছেন

নাঈমুর রহমান দুর্জয়
নাঈমুর রহমান দুর্জয়
নাঈমুর রহমান দুর্জয়, শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ওয়েবসাইট "এডু হেল্পস বিডি"র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজ এর সরকারি বাঙলা কলেজে এমবিএ করতেছেন।