অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার্থীদের করনীয় বিষয়; জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়

0

আর মাত্র দুই দিন পর অর্থাৎ ১৩ নভেম্বর সকাল ৯ টা থেকে শুরু হতে যাচ্ছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ১ম বর্ষ ফাইনাল পরীক্ষা। নতুন হিসাবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ১ম বর্ষ শিক্ষার্থীদের এর জন্য নিচের তথ্য গুলো জানা অনেক জরুরি। তাই এডু হেল্পস বিডি পাঠকদের জন্য তথ্যগুলো সংগ্রহ করা হল। 

অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার্থীদের করনীয়

️১। মূল রেজিঃ কার্ড ও এডমিড কার্ড ফাইলে মনে করে ঢুকিয়ে রাখুন। এটা ছাড়া পরিক্ষা দিতে পারবেন না। সেই  সাথে মাস্ক ও সুরক্ষা সামগ্রি রাখবেন অবশ্যই।

২। বৃত্ত ভরাট করা ও লেখার জন্য ৩ বা ৪ টা কলম সাথে রাখবেন। ভাই একটা কলম দেন, কলম দে করাটা বিরক্তকর। দেখা যাবে পিছনে কলম চাইতে ঘাড় ঘুরিয়েছেন সামনে খাতা নেই।

৩। প্রশ্নের মধ্যে লিখবেন বা দাগ দিবেন না। প্রয়োজনে পেন্সিল ব্যবহার করুন। লিখে আবার মুছে দিবেন।
৪। কেন্দ্রে অবশ্যই ১ঘন্টা আগে প্রবেশ করবেন।
️৫। শরীর ও মন দুটাই ফ্রেশ ও ঠান্ডা রাখবেন। একেবারেই কোন টেনশন করা যাবে না।
৬। স্নাতক (সম্মান ) শ্রেণীর পরিক্ষার্থী আপনি সুতরাং শার্ট ও প্যান্ট পড়ে যাবেন। টি শার্ট পরে গিয়ে নিজেকে জোকারের মত পরিবেশন করবেন না।
️৭। মেয়েরা যথাযথ পোশাক পরিধান করে যাবেন। শিক্ষকেরা উৎশৃঙ্খলতা মোটেও পছন্দ করে না। ফলে অযথা আপনি তাদের রাগের অংশে পরে যাবেন এবং ছোট ছোট সুবিধা থেকে বঞ্চিত হতে হবে।
️৮। হাত ঘামে যাদের তারা রুমাল বা টিসু সাথে রাখবেন।
৯। পানির বোতল অবশ্যই সাথে রাখবেন। সেই সাথে অবশ্যই ঘড়ি সাথে রাখবেন।
১০। আজাইরা কোন পেচাল পারবেন না। অযথা কথা ও বলবেন না।
️১১। বিকট ও পচা মার্কা পারফিউম কেউ ব্যবহর করে যাবেন না। এতে আপনার পাশে যে বসবে সে অজ্ঞান হয়ে যেতে পারে। তাই বিষয়টা মাথায় রাখিবেন।
️১২। যদি ক্রাশ খাওয়ার নিয়ত থাকে তাহলে বাঁশ কিন্তু রেডি থাকবে বুঝে নিবেন। কারন লোকাল বাসের সীট আর সুন্দরী মেয়ে…. কখনো ফাঁকা থাকেনা।
️১৩। নিজে যা পারবেন সেটা আগে লিখবেন। মায়া দেখাতে গিয়ে খাতা খুলে রাখলে রেজাল্ট অতটাই লুকিয়ে রাখতে হবে।
️১৪। হাজিরা খাতাতে আপনার খাতার নাম্বার ও সিগনেচার তুলতে ও লিখতে ভুল করবেন না।
১৫। এক্সট্রা লুজ নিলে তার নাম্বার আপনার মূল খাতার পিছনে তুলবেন ও স্যারের নিকট সিগনেচার করিয়ে নিবেন।

পরীক্ষার্থীদের করনীয় বিষয়

১৬। সাথে ফোন রাখবেন না এবং না। টিচারের নিকট বা কারো ব্যাগে রেখে দিবেন। মেয়েরা ভুল করে ভ্যানিটি ব্যাগ সাথে রাখবেন না। ব্যাগ টিচারের সামনে বা বারান্দায় থাকবে।
️১৭। সময় অপচয় করবেন না। জলযোগ বা বির্ষজন সেরে হলে প্রবেশ করবেন।
️১৮। কালার পেন দিয়ে মার্কিং বা পয়েন্ট লিখার নিয়ম নেই। এতে আপনাকে মার্ক বেশিও দিবে না। হাতের লেখার যে মার্ক কাটার সেটা কাটা যাবেই ! আর কালার পেন দিয়ে মার্কিং করা মানে সময় নষ্ট করা। কারন ১বার আপনি কালার পেন তুলবেন আবার টিপে টিপে লিখে পেন রেখে আবার কালো পেন তুলবেন। সময় নষ্ট হবে। বরং কালো কলম দিয়ে পয়েন্টটা ১টু বড় করে লিখে নিচে দুটা আন্ডার লাইন করে দিলে যথেষ্ট। বাকিটা আপনার অভিরুচি। যা ভালো লাগে করবেন।
১৯। টিচারের সাথে বিনয়ের সাথে কথা বলবেন। আপনাকে যদি তাঁরা ওয়ার্ন করে তবে সেটা মেনে নিবেন। তর্কে জড়ালে দুঃখ হতে পারে।
️২০। যদি খাতা কেড়ে নেয় তবে শান্ত থাকবেন। কৈফত দিবেন না বা বুঝ দিতে যাবেন না। ১টু পর বিনয়ের সাথে চাইবেন।
️২১। আপনাকে যে খাতা দেয়া হবে সেটা আপনার পাবলিক পরিক্ষার মত হবে। তবে ব্যতিক্রম আছে। বলে দিচ্ছি ভালো করে নোট করেন পারলে ৫ বার পড়েন এই পয়েন্ট। যে খাতা দেয়া হবে তার প্রথম পাতায় বৃত্ত ভরাট করতে হবে। তবে… ১ম অংশের সবার প্রথমে একটা খালি ঘর থাকবে যেখান ইংরেজি বড় হাতের অক্ষরে আপনার রেজিঃকার্ডে আপনার যে নাম আছে আপনি অনুরূপ ঐ নাম লিখবেন। এর পর রোল ও রেজিঃনাম্বারের ঘর পূরণ করে বূত্ত ভরাট করবেন। আপনার হাতের বাম পাশে একটা ঘর আছে পরিক্ষা কোড নামের। উক্ত ঘরে আপনাকে পরিক্ষা কোড লিখতে হবে।পরিক্ষা কোড আপনার এডমিট কার্ডে Exam Code নামে মাঝা মাঝি দেয়া আছে। বোকার মত উক্ত ঘরে বিষয়কোড বা পত্র কোড লিখবেন না। বিষয় কোড বা পত্র কোডের ঘর আপনার হাতের ডান পাশে আছে আবার বলছি হাতের ডান পাশে। বৃত্ত ভরাট হলে….. পাতা উল্টালে আবার একটা ঘর দেখতে পাবেন। যার প্রথম ঘরটাতে অনার্স ১ম বর্ষ বা স্নাতক(সম্মান) ১ম বর্ষ লিখতে হবে এবং পরিক্ষা……. ২০২০ লিখবেন। ( কারন আপনাদের পরিক্ষা ২০ সালের।) এরপর, বিষয়…… এর ঘরে আপনার ডিপার্টমেন্টের নাম লিখবেন, উদাহরণঃ বিষয়ঃ বাংলা। তারপর, বিষয়ের শিরোনামঃ ঐ ঘরে আপনি যে সাবজক্টের পরিক্ষা দিবেন ঐটার নাম লিখবেন। উদাহরন, বিষয়ের শিরোনামঃ স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস। তারপর, তারিখের ঘরে যেদিন পরিক্ষা দিবেন সেই তারিখ লিখবেন। তারপর, তারিখ দিয়ে মার্জিন দেয়া শুরু করবেন।
২১ নং পয়েন্ট ভালো করে নোট করবেন। হালকা ভূল হলে, রেজাল্ট আসবে না।
আপনার পরিক্ষা সুন্দর হোক। দোয়া রইল।
লেখাটি ফেসবুক হতে সংগ্রহ করা। 

 

পোষ্টটি লিখেছেন

নাঈমুর রহমান দুর্জয়
নাঈমুর রহমান দুর্জয়
নাঈমুর রহমান দুর্জয়, শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ওয়েবসাইট "এডু হেল্পস বিডি"র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজ এর সরকারি বাঙলা কলেজে এমবিএ করতেছেন।